রাঙামাটি । শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ , ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

বাঘাইছড়ি (রাঙামাটি) প্রতিনিধিঃ-

প্রকাশিত: ১০:৩৫, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

তুলাবান উচ্চ বিদ্যালয়ে বিদায় অনুষ্ঠান ও ক্রীড়া পুরস্কার বিতরণ 

তুলাবান উচ্চ বিদ্যালয়ে বিদায় অনুষ্ঠান ও ক্রীড়া পুরস্কার বিতরণ 

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার মারিশ্যা ইউনিয়নে অবস্থিত তুলাবান উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা, ৬ষ্ঠ শ্রেণীর নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ, বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (০৮ ফেব্রুয়ারী) বেলা ১২টায় তুলাবান উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২৭ বিজিবি মারিশ্যা জোনের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ আতিকুর রহমান পদাতিক। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য চিরঞ্জীব চাকমার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথিদের মধ্যে মারিশ্যা জোনের উপ অধিনায়ক মেজর জাকির হোসেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা, ভাইস চেয়ারম্যান সাগরিকা চাকমা, কাচালং সরকারী কলেজে সাবেক অধ্যক্ষ দেব প্রসাদ দেওয়ান, বর্তমান অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, মারিশ্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আপন চাকমা, অভিভাবকবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক জ্ঞান রঞ্জন চাকমা। 

বক্তারা বলেন, তুলাবান উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা অনেক দূর দুরান্ত থেকে এসে পড়াশোনা করে, ভালো ফলাফলের পাশাপাশি তারা সহ শিক্ষা বিশেষ করে খেলাধুলা, নাচ গান ইত্যাদি বিষয়ে দারুণ পারদর্শী, ভালোভাবে গাইড করতে পারলে তারা ভবিষ্যত দেশ গড়ার কারিগর হিসেবে রুপান্তরিত হবে৷ এছাড়াও অত্র বিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্ররা দেশ বিদেশে সুনামের সাথে সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব পালন করছে এবং জনপ্রতিনিধিত্ব করছে সুনামের সাথে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা বলেন, দুর্গমতাকে জয় করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে, দারিদ্রতা জয় করার অন্যতম মাধ্যম হলো সু-শিক্ষা, এসএসসি পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন তোমরা পরীক্ষার জন্য ভালো প্রস্তুতির পাশাপাশি নিজের স্বাস্থের প্রতি যত্নবান হবে কারন স্বাস্থ্য ভালো থাকলে পড়াশোনাও ভালো হবে৷ 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, তুলাবান উচ্চ বিদ্যালয়ের বয়স খুব বেশী না হলেও এই বিদ্যালয়ের সুনাম আমি শুনেছি তোমরা যারা ১০ বছর পড়াশোনা করে এবার এসএসসি পরীক্ষা দিবে তোমরা ভালোভাবে প্রিপারেশন নিবে কোন অসাধু পন্থার অবলম্বন করবে না এতে করে তোমাদের জীবন সুন্দর ও আলোকিত হবে বলে আমি বিশ্বাস করি।
 
আলোচনা সভা শেষে মেধা তালিকায় ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারী এবং ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে যারা বিজয়ী হয়েছেন তাদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হয়। এছাড়াও বিদ্যালয়ের ২০২৩ সালের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে মনোনীত সুনীল বিকাশ চাকমাকে শুভেচ্ছা স্মারক প্রধান করা হয়।  পরে অতিথিদের সম্মাননা স্মারক প্রধান করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জ্ঞান রঞ্জন চাকমা।