রাঙামাটি । রোববার, ২৩ জুন ২০২৪ , ১০ আষাঢ় ১৪৩১

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্কঃ-

প্রকাশিত: ১০:৫৮, ২৪ মে ২০২৩

কৃত্রিম চিনি গ্রহণে স্বাস্থ্যের ক্ষতিকর দিকগুলো

কৃত্রিম চিনি গ্রহণে স্বাস্থ্যের ক্ষতিকর দিকগুলো
ফাইল ছবি

আধুনিক এই সময়ে কৃত্রিম চিনিকে আসল চিনির বিকল্প বলা হয়। যা খুবই মিষ্টি এবং স্বাদও আসল চিনির মতো।

তবে গবেষকরা বিভিন্ন সময় জানিয়েছেন, কৃত্রিম চিনি স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়। এসব চিনি গ্রহণ বা খাবারে ব্যবহারে বিভিন্ন ক্ষতিকর দিক রয়েছে। কৃত্রিম চিনি বেশি গ্রহণের কারণে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকসহ কার্ডিওভাসকুলারের মতো রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে থাকে। কৃত্রিম চিনিতে থাকা এরিথ্রিটল নামের যৌগ স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক, রক্ত জমাট বাঁধাসহ মৃত্যু পর্যন্ত ঘটাতে পারে।

অনেক সময় ওজন কমানোর জন্য কৃত্রিম মিষ্টির কথা বলে থাকেন। এতে বিপরীত প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। কারণ, কৃত্রিমভাবে মিষ্টি করা পানীয় ও খাবারে স্বাভাবিকভাবে ক্ষুধা ও চিনি গ্রহণের ইচ্ছা বাড়ে। আর ক্ষুধা বৃদ্ধি মোটেও ভালো নয়, যা স্বাস্থ্য ঝুঁকি। এতে খাওয়ার প্রতি আগ্রহ বাড়ে। ফলে অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি হতে পারে।

কৃত্রিম চিনি গ্রহণের কারণে ক্যানসার হওয়ার ঝুঁকিও বাড়ার সম্ভাবনা থাকে। এক গবেষণায় মূত্রাশয় ক্যানসারের সঙ্গে স্যাকারিনের সম্পর্ক পাওয়া গেছে বলে জানানো হয়েছে।

অনেক বিশেষজ্ঞরা বলে থাকেন, কৃত্রিম চিনি গ্রহণের কারণে কখনো কখনো কিছু মানুষের মাথাব্যথা হয়ে থাকে। এ জন্য যারা মাইগ্রেনে আক্রান্ত তাদের বেশি সংবেদনশীল হওয়া উচিত।