রাঙামাটি । শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪ , ২৯ চৈত্র ১৪৩০

রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ-

প্রকাশিত: ১৮:০২, ১২ মার্চ ২০২৩

আপডেট: ১১:৩৯, ১৩ মার্চ ২০২৩

​​​​​​​প্রকল্পের সফলতা দেখে আমি মুগ্ধ: ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত

সাপছড়ি সোলার প্যানেলের মাধ্যমে পানির প্রকল্প পরিদর্শন

​​​​​​​প্রকল্পের সফলতা দেখে আমি মুগ্ধ: ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত

রাঙামাটি সদর উপজেলা ফুরমোন এলাকায় জিএফএস পানির প্রকল্পের সফলতা দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের নিযুক্ত ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত এইচ ই উইনি এস্ট্রাপ পিটারসেন। তিনি বলেন, এই সোলার প্রকল্পের মাধ্যমে গ্রামের সাধারণ মানুষ যে তাদের নিত্যদিনের পানি চাহিদা ও ফসল উৎপাদনে পানির ব্যবহার নিশ্চিত করতে পেরেছে। আজ প্রকল্পের সফলতা দেখে আমি মুগ্ধ। এটাই হচ্ছে ড্যানমার্ক সরকারের সার্থকতা।

রবিবার (১২ মার্চ) রাঙামাটি জেলার ফুরমোন এলাকায় ড্যানমার্ক সরকারের অর্থায়নে সদর উপজেলার সাপছড়ি ইউনিয়নের সোলার চালিত সেচ পাম্প ও ফুরোমোন এলাকায় জিএফএস মাধ্যমে পানি সরবরাহ প্রকল্প পরিদর্শন করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জেলা প্রশাসকের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।


এ সময় ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি স্টাপন লিলাস, রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব এসএম ফেরদৌস ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন সহ ইউএনডিপির প্রতিনিধি দলের অন্যান্য প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।


এর আগে প্রতিনিধি দল ড্যানমার্ক সরকারের অর্থায়নে পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের বিশেষ প্রকল্প রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের বাস্তবায়িত রাঙামাটি সদর উপজেলার সাপছড়ি ইউনিয়নের সোলার চালিত সেচ পাম্প ও ফুরোমোন এলাকায় জিএফএস মাধ্যমে পানি সরবরাহ প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন।

সকালে রাঙামাটি সদর উপজেলার সাপছড়ি ফুরমোন এলাকায় ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত পৌঁছালে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান স্থানীয় সুবিধাভোগীরা।


পরে জিএফএস পানি লাইন ও সেচ প্রকল্প পরির্দশন করেন। পরির্দশন শেষে সুবিধাভোগীদের সাথে মতবিনিময় করেন তিনি।

এ সময় রাঙামাটি সদর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজনা বিনতে আমিন, ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি স্টাপন লিলাস, সহকারি প্রতিনিধি প্রসেনজিৎ চাকমা, এসআইডি সিএইচটি ইউএনডিপির জাতীয় প্রকল্প ব্যবস্থাপক সুপ্রদীপ চাকমা, বিপ্লব চাকমা, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সিসিআরপির জেলা কর্মকর্তা পলাশ খীসাসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত এইচ ই উইনি এস্ট্রাপ পিটারসেন বলেন, এই প্রকল্প যখন গ্রহণ করা হয়েছে তখন আমি এসেছি। এত একটি সুন্দর প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে যা না দেখলে আমার কাল্পনিক মনে হতো। আমি এ প্রকল্প দেখে খুবই অভিভূত।

জনপ্রিয়