রাঙামাটি । শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪ , ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

ব্রেকিং

গভীর রাতে কাপ্তাইয়ের কেপিএমে আগুন, উৎপাদন বন্ধবন্যপ্রাণী বাঁচাতে হলে পরিবেশ ও আবাসস্থল ঠিক রাখতে হবেরাঙামাটিতে ছেলে ধরা সন্দেহে আটক ১বগুড়ায় একই পরিবারের নিখোঁজ ৭ জনকে রাঙামাটিতে উদ্ধারক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের আর্থিক অনুদান দিলো রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদপরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষরোপণের বিকল্প নেই: দীপংকর তালুকদারনারী পাচার চক্রের তিন চাকমা সদস্যকে জেল হাজতে প্রেরণবাঘাইছড়িতে বন্যার পানিতে তলিয়ে নিখোঁজ শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধারটানা বর্ষণে কাপ্তাই হ্রদে পানি বৃদ্ধি, চার ইউনিটে বিদ্যুৎ উৎপাদন ১৬৪ মেগাওয়াটখাগড়াছড়িতে পাহাড়ধস: ৩ ঘণ্টা পর যান চলাচল স্বাভাবিকতিন দিনের সফরে রাঙামাটি আসছেন রাষ্ট্রপতিরাঙামাটিতে পাহাড় ধসের সর্তকতায় মাইকিং, প্রস্তুত ২৬৭ আশ্রয়কেন্দ্ররাঙামাটিতে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিতবাঘাইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২৭ জুলাই, ভোট ইভিএমে

রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ-

প্রকাশিত: ১৫:০৭, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আপডেট: ১৫:০৯, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

রাঙামাটিতে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য বিদ্যানন্দের ৫ টাকার বাজার

রাঙামাটিতে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য বিদ্যানন্দের ৫ টাকার বাজার

মানুষ যেন ফিরছে শায়েস্তা খাঁ আমলে, ১ টাকায় চাল, চিনি ২ টাকা ও তেল ৩ টাকা করে মিলছে এ বাজারে। রাঙামাটিতে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য এমন এক বাজারের আয়োজন করেছেন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন।

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে রাঙামাটি শহরের সাবরাঙ কমিউনিটি সেন্টারে ৫ টাকার এ ভিন্নধর্মী বাজারের আয়োজন করেন তারা।

এতে সুবিধাভোগীরা ১০ টাকা দিয়ে তেল, চাল, ডাল, মাছ, মুরগী, পেঁয়াজ, লুঙ্গি, স্কুল ব্যাগসহ প্রায় ১৯টি পণ্য কিনতে পারছেন। একজনে ১০ টাকা দিয়ে পাচ্ছেন ৭০০ টাকা দামের প্রয়োজনীয় নিত্যপণ্য।

আয়োজকরা জানান, নিত্যপণ্যের ঊর্ধ্বগতিতে স্বল্প আয়ের মানুষের খুব কষ্ট হচ্ছে। তাছাড়া রাঙামাটিতে বন্যায় অনেকে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এমন মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে বিদ্যানন্দ ফান্ডেশনের পাঁচ টাকার বাজারের কার্য়ক্রম। বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের তালিকা ভুক্ত ৩০০ জন নিম্ন আয়ের মানুষ ১০ টাকার বিনিমিয়ে এসব পণ্য ক্রয় করছেন।

ক্রেতা সুকুমার চাকমা বলেন, এক টাকা করে ১ কেজি চাল, ১ কেজি পেঁয়াজ, ১ কেজি ডাল, আলু, লবণ, ৩ টাকা দিয়ে লুঙ্গি এবং ২ টাকা দিয়ে এক প্যাকেট নুডলস কিনলাম। আমাদের মতো গরীব মানুষের এমন বাজার অনেক উপকার করছে।

ক্রেতা সমিতা তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, নিয়মিত যা আয় করি তা দ্রুত শেষ হয়ে যায়। এখানে এসে ১০ টাকা দিয়ে অনেক পণ্যদ্রব্য কিনতে পেরে আমি খুব খুশি।

ক্রেতা পূর্ণিমা আকতার বলেন, যেখানে ৫০০-৬০০ টাকা দিয়ে হয়না সেখানে আমরা ১০ দিয়ে অনেক পণ্য নিতে পারছি। এটা খুব ভালো লাগছে। এমন বাজারের আয়োজন নিয়মিত করলে আমাদের জন্য অনেক উপকার হবে।

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বোর্ড সদস্য মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন বলেন, নিম্ন আয়ের মানুষ এবং বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলো যেন স্বল্প দামে উৎসবমুখর পরিবেশে পণ্য ক্রয় করতে পারে এজন্য আমাদের পাঁচ টাকার বাজারের আয়োজন। এখানে পণ্যের সর্বোচ্চ মূল্য পাঁচ টাকা। এতে সুবিধাভোগীরা ১০ টাকা দিয়ে ৭০০ টাকার মতো পণ্য পাচ্ছেন। তাদের এমন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

সম্পর্কিত বিষয়:

জনপ্রিয়