রাঙামাটি । শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪ , ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

ব্রেকিং

গভীর রাতে কাপ্তাইয়ের কেপিএমে আগুন, উৎপাদন বন্ধবন্যপ্রাণী বাঁচাতে হলে পরিবেশ ও আবাসস্থল ঠিক রাখতে হবেরাঙামাটিতে ছেলে ধরা সন্দেহে আটক ১বগুড়ায় একই পরিবারের নিখোঁজ ৭ জনকে রাঙামাটিতে উদ্ধারক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের আর্থিক অনুদান দিলো রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদপরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষরোপণের বিকল্প নেই: দীপংকর তালুকদারনারী পাচার চক্রের তিন চাকমা সদস্যকে জেল হাজতে প্রেরণবাঘাইছড়িতে বন্যার পানিতে তলিয়ে নিখোঁজ শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধারটানা বর্ষণে কাপ্তাই হ্রদে পানি বৃদ্ধি, চার ইউনিটে বিদ্যুৎ উৎপাদন ১৬৪ মেগাওয়াটখাগড়াছড়িতে পাহাড়ধস: ৩ ঘণ্টা পর যান চলাচল স্বাভাবিকতিন দিনের সফরে রাঙামাটি আসছেন রাষ্ট্রপতিরাঙামাটিতে পাহাড় ধসের সর্তকতায় মাইকিং, প্রস্তুত ২৬৭ আশ্রয়কেন্দ্ররাঙামাটিতে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিতবাঘাইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২৭ জুলাই, ভোট ইভিএমে

নিউজ ডেস্কঃ-

প্রকাশিত: ১২:৫৭, ৯ জুলাই ২০২৪

আপডেট: ১৪:২৬, ৯ জুলাই ২০২৪

বগুড়ায় একই পরিবারের নিখোঁজ ৭ জনকে রাঙামাটিতে উদ্ধার

বগুড়ায় একই পরিবারের নিখোঁজ ৭ জনকে রাঙামাটিতে উদ্ধার
সংগৃহীত ছবি

বগুড়া জেলা নিখোঁজ একই পরিবারের ৭ জনকে রাঙামাটি থেকে উদ্ধার করেছে ডিবি পুলিশ। এরমধ্যে পাঁচজনকে রাঙামাটি জেলা শহর ও দু’জনকে জেলার নানিয়ারচর উপজেলার বুড়িঘাট থেকে উদ্ধার করা জানিয়েছে রাঙামাটির ডিবি পুলিশ।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) রাঙামাটির ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মানস বড়ুয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। খবর ঢাকা মেইল

উদ্ধার সাতজন হলেন- ফাতেমা বেগম বেবি (৪৮), মো: বিক্রম আলী (১৩), রুনা খাতুন (১৫), রুমি বেগম (৩২), বৃষ্টি খাতুন (১৪), মো: হাসান (৬) ও মো: হোসেন (৬)। তারা সকলেই বর্তমানে বগুড়া জেলার নারুলী পুলিশ ফাঁড়ি এলাকার বাসিন্দা।

ওসি মানস বড়ুয়া বলেন, বগুড়া থেকে রহস্যজনকভাবে একই পরিবারের ৭ জন নিখোঁজের পর পিবিআই আমাদের সহায়তা চায়। সোমবার দিনভর অভিযান চালিয়ে আমরা জেলা শহরের এক এলাকা থেকে ৫ জন ও নানিয়ারচর উপজেলার বুড়িঘাট ইউনিয়ন থেকে ২ জনসহ একই পরিবারের ৭ জনকে উদ্ধার করি। সোমবার রাতেই তাদের বগুড়ার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এর আগে, গত ৬ জুলাই বগুড়া সদর থানায় নিখোঁজের ঘটনায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে ফাতেমা বেগম বেবির স্বামী মো: আব্দুর রহমান। 

জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, ৩ জুলাই আব্দুর রহমান বাড়িতে না থাকার সুযোগে পরিবারের সাত সদস্য বাড়ি থেকে চলে যায়। থানায় জিডির একদিন পর ৮ জুলাই একই পরিবারের সাতজনকে উদ্ধার করে রাঙামাটির পুলিশ।

সম্পর্কিত বিষয়:

জনপ্রিয়