রাঙামাটি । রোববার, ২৬ মে ২০২৪ , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রাঙামাটি (সদর) প্রতিনিধিঃ

প্রকাশিত: ২১:৪৬, ২৫ মে ২০২৩

নারী এগিয়ে গেলে দেশ এগিয়ে যাবে: দীপংকর তালুকদার

রাঙামাটিতে দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ

নারী এগিয়ে গেলে দেশ এগিয়ে যাবে: দীপংকর তালুকদার

অসহায় ও দুস্থ মহিলাদের ভাগ্যোন্নয়ন এবং আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষে রাঙ্গামাটির সদর উপজেলার ৬ ইউনিয়নের প্রশিক্ষিত মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) বিকেলে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাঙামাটি সংসদ সদস্য ও খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি।

উপজেলা পরিষদ নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমা বিনতে আমিনের সভাপতিত্বে ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শহীদুজ্জামান মহসিন রোমান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দীপক বিকাশ চাকমা, সহ-সভাপতি সাধান মনি চাকমা, যুব মহিলা লীগ সভাপতি রোকেয়া আক্তার, মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহিতা দেওয়ান, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ মহিলা সম্পাদিকা রিমি চাকমা প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি দীপংকর তালুকদার বলেন, নারীরাই পারে সংসারে সুখ-শান্তি বয়ে আনতে। সংসারে ভাগ্যোন্নয়ের ভার আপনাদের উপর। নারী এগিয়ে গেলে দেশ এগিয়ে যাবে। আপনাদের পরিবারের স্বচ্ছলতার জন্য সরকারে এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। যে লক্ষ্য উদ্দেশ্যে নিয়ে এই সেলাই মেশিন বিতরণ করা হচ্ছে সে লক্ষ্য উদ্দেশ্য তখনই স্বার্থক হবে যখন শুনবো আপনার পরিবারে স্বচ্ছলতা এসেছে। 

তিনি  আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারীদের জীবনমান উন্নয়ন অনেক কাজ করেছেন। যা আর কোনো সরকার করতে পারেনি। তাই এই সকল উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে আওয়ামী লীগ সরকারের বিকল্প নেই।  

সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুজ্জামান মহসিন রোমান বলেন, পাহাড়ি-বাঙালি ঐক্যের প্রতীক আমাদের অভিভাবক দীপংকর তালুকদার যতদিন থাকবেন ততদিন রাঙামাটি উন্নয়ন হবে। যে কোনো বিপদে আমরা উনাকে সবার আগে পাশে পাই। তাই আমরা সব সময় উনার পাশে থেকে সমর্থন দিয়ে যাবো। 

সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমা বিনতে আমিন বলেন, ইউনিয়ন পর্যায়ে যে বরাদ্দ আসে আমরা সেটা যথাযথ ভাবে বাস্তবায়ন করে থাকি। সেই আলোকে আমরা আজকে এই সেলাই মেশিনগুলো প্রশিক্ষিত দুস্থ মহিলা মাঝে বিতরণ করছি। আমাদের উদ্দেশ্য পুরুষের পাশাপাশি নারীদেরও দেশের উন্নয়ন কাজে সামিল করা। সেজন্য সরকার নারী দক্ষতা উন্নয়ন, নারী ক্ষমতায়ন, নারী সুরক্ষাসহ নানান বিষয়ে জোর দিচ্ছে। তাছাড়া নারী  পুরুষ একত্রিত হয়ে কাজ না করলে ২০৪১ সালে প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়ার যে স্বপ্ন সেটি বাস্তবায়ন হবেনা। তাই দেশ উন্নয়নে নারী-পুরুষ সকলে একত্রিত হয়ে কাজ করতে হবে। 

পরে স্থানীয় সরকার বিভাগ ও জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি সহায়তা ১৫ জন প্রশিক্ষিত উপকারভোগীদের হাতে সেলাই মেশিন ও স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের হাতে ১৫০০ স্যানিটারি ন্যাপকিন তুলে দেন অতিথিরা।