রাঙামাটি । মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪ , ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

কাপ্তাই (রাঙামাটি) প্রতিনিধিঃ-

প্রকাশিত: ১৫:০৭, ২৬ অক্টোবর ২০২৩

দীর্ঘদিনের জনভোগান্তি দূর

অবশেষে চন্দ্রঘোনা থানাঘাট-মিশন সড়কের সংস্কার কাজ সম্পন্ন

অবশেষে চন্দ্রঘোনা থানাঘাট-মিশন সড়কের সংস্কার কাজ সম্পন্ন
সংস্কারের পর থানাঘাট-মিশন সড়ক দিয়ে যান চলাচল করছে।

অবশেষে কাপ্তাই উপজেলাধীন চন্দ্রঘোনা থানাঘাট-মিশন সড়কটি পুনঃসংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। কাজ শেষে গত বুধবার (২৫ অক্টোবর) থেকে যান চলাচলের জন্য সড়কটি খুলে দেওয়া হয়েছে। এতে দীর্ঘদিনের জনভোগান্তি দূর হলো।

বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, সড়কটিতে বিভিন্ন যানবানহন ও জনসাধারণ চলাচল করছে। গত প্রায় ২০ দিন যাবৎ সংস্কার কাজের জন্য সড়কটিতে সব রকম যান বা জনসাধারনের চলাচল বন্ধ ছিলো। এতে স্থানীয় এলাকাবাসি বিকল্প সড়ক ব্যবহার করে অনেক দূর পর্যন্ত পায়ে হেটে চলাচল করায় জনভোগান্তি চরমে উঠেছিলো। সড়কটির সংস্কার কাজ সম্পন্ন হওয়ায় এবং যানচলাচলের জন্য খুলে দেওয়ায় জনসাধারনের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

এদিকে, সড়কটিতে চলাচলকারী সিএনজি চালক আব্দুর রহিম ও শাহজাহান জানান, সড়কটি খানাখন্দে ভরা এবং ঝুঁকিপূর্ণ থাকায় সড়ক সংস্কারের পূর্বে আমাদের বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছিলো। অনেক সময় ঝু্ঁকিপূর্ণ ওই সড়ক দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে সড়কের বিভিন্ন স্থানে বের হয়ে থাকা লোহার রডে গাড়ির চাকা ক্ষতিগ্রস্ত হতো। সড়কটি সংস্কার হওয়ায় দীর্ঘদিনের ভোগান্তি দূর হয়েছে।

স্থানীয় কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ভাঙা, বড় বড় গর্ত থাকায় চলাচল করতে দুর্ভোগ পোহাতে হতো। পাশাপাশি গাড়ির ঝাঁকুনিতে বয়োবৃদ্ধ মানুষের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতো। তবে সড়কটি এখন মেরামত হওয়ায় ওই দুর্ভোগ আর পোহাতে হবেনা।

অপরদিকে সড়ক সংস্কার কাজের ঠিকাদার বাপ্পী তঞ্চঙ্গ্যা জানান, প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে রাঙামাটি জেলা পরিষদের অর্থায়নে সড়কটির পুনঃসংস্কার কাজ করা হয়। তিনি বলেন, প্রায় টানা ২০ দিনের অধিক সময় নিয়ে একটানা কাজ করে সড়কটি দ্রুত সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। কাজ শেষে রাঙামাটি জেলা পরিষদের প্রকৌশল অধিদপ্তরে সড়কটি বুঝিয়ে দেওয়া হয় বলে তিনি জানান।

চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন মিলন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি চলাচলের অনুপযোগী ও ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় ছিল। সড়কটির সংস্কার কাজ সম্পন্ন হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। এর জন্য তিনি খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও রাঙামাটির সাংসদ দীপংকর তালুকদার, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুপ্রু চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

প্রসঙ্গত, থানাঘাট-মিশন সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের অনুপযোগী অবস্থায় ছিল। ঝুঁকি নিয়ে মামুষ ও যান চলাচল করত। সড়কের এসব দূর্দশার চিত্র তুলে ধরে কাপ্তাইয়ের স্থানীয় সাংবাদিকরা বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এতে সড়কটির সংস্কার কাজে অগ্রগতি হয়। এতে সড়কের সংস্কার কাজ করার পথকে অনেকটা এগিয়ে নেয় বলে স্থানীয় সচেতন মহল মনে করেন।

সম্পর্কিত বিষয়: