রাঙামাটি । রোববার, ২৩ জুন ২০২৪ , ১০ আষাঢ় ১৪৩১

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্কঃ-

প্রকাশিত: ১৭:০১, ১১ মে ২০২৩

প্রথমেই বাংলাদেশের নাম নিলেন গুগল সিইও, বললেন এআই’র ভবিষ্যৎ নিয়ে

গুগলের আই/ও সম্মেলন ২০২৩

প্রথমেই বাংলাদেশের নাম নিলেন গুগল সিইও, বললেন এআই’র ভবিষ্যৎ নিয়ে
গুগল প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সুন্দর পিচাই। ছবি: সংগৃহীত

মাউন্টেন ভিউয়ের শোরলাইন অ্যাম্ফিথিয়েটারে গুগলের বার্ষিক সম্মেলন (আই/ও ২০২৩) পর্বের আনুষ্ঠানিক সূচনা হয়। প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার স্বাগত বক্তব্যে বারবারই উঠে আসছিল কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার (AI) ভবিষ্যতের নানা দিক। বিশেষ করে, গুগল তার মূল সার্চ ইঞ্জিনে জেনারেটিভ আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স আপডেট করছে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার মাউন্টেন ভিউয়ে গুগলের চারটি রঙে সজ্জিত মঞ্চে উঠলেন গুগল প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সুন্দর পিচাই। বার্ষিক সম্মেলনে উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনলাইনে যুক্ত কোটি দর্শকেরও সঙ্গে যুক্ত হলেন।

এবারের সম্মেলন বাংলাদেশিদের কাছে বিশেষ নজর কেড়েছে। কারণ দেশের নামের বেলায় প্রথম উচ্চারণ করলেন বাংলাদেশের নাম। তিনি বলেন,

প্রাথমিকভাবে বার্ড রিলিজ করা হয়েছিল পাবলিক ওয়েটলিস্ট প্রিভিউ হিসেবে। এরই মধ্যে এই জেনারেটিভ এআই অত্যন্ত উন্নত বলে প্রমাণিত হয়েছে বলে জানান তিনি। চ্যাটজিপিটি এবং বিং-এর মতো আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নির্ভর চ্যাটবটের সঙ্গেও টক্কর দিতে পারে গুগলের বার্ড এআই প্রযুক্তি।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) নিয়ে সমসাময়িক আলোচনার কথা তুলে ধরে সুন্দর পিচাই বলেন, এ বছরই এআই নিয়ে আলোচনার। জানালেন, গুগলই প্রথম এআই প্রতিষ্ঠান। তার বক্তব্যে উঠে এসেছে কীভাবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা দিয়ে বিগত বছরগুলোতে সমাজে এবং মানুষের জীবনে পরিবর্তন এনেছে গুগল।

গুগলের আই/ও সম্মেলন ২০২৩


গুগল বলছে, সার্চ জেনারেটিভ এক্সপেরিয়েন্স এখন থেকে গুগলের অংশ হয়ে ওপেন এন্ডেড প্রশ্নের উত্তর দিবে। তবে এই সুবিধা এখনই সকল গ্রাহক পাচ্ছেন না। এটি এখনও কেবল সীমিত সংখ্যক ব্যবহারকারীর জন্য পরীক্ষামূলক পর্যায়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রযুক্তি জায়ান্ট বলছে, ‘অজানা ট্র্যাকার সতর্কতা’ এই গ্রীষ্মে লাইভ হবে। এর আগে অ্যাপল এবং গুগল গত সপ্তাহে ঘোষণা করেছে, সমস্যা সমাধানের জন্য তারা একসঙ্গে কাজ করবে।

এদিকে স্মার্টফোনে ফোল্ডেবল যুগের সূচনা হতে যাচ্ছে তা সুন্দর পিচাইয়ের ঘোষণা থেকেই সুস্পষ্ট । যদিও নতুন ধারার স্মার্টফোনে স্যামসাং নাম লিখিয়েছে আগেই। তবে শুরুতে কিছু ভুল সিদ্ধান্তের কারণে প্রত্যাশিত স্যামসাং ফোল্ডেবল ফোনের সাফল্যেয় ভাটা পড়ে। ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েছে গুগল। আর ভুলগুলো সংশোধন করে সবকিছু ভোক্তাবান্ধব করেই উন্মোচন করছে পিক্সেল ফোল্ড।

স্মার্টফোনে ফাইভজি গতির পুরোটা উপভোগে ফোল্ডেবল ফোন অবশ্যই অভ্যাস বদলের আভাস দিচ্ছে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (AI) যাত্রাকালে ফোল্ডেবল স্মার্টফোন নতুন কি উন্মাদনা নিয়ে আসে তা দেখার অধীর অপেক্ষায় আছেন সবাই।