রাঙামাটি । শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪ , ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

ব্রেকিং

গভীর রাতে কাপ্তাইয়ের কেপিএমে আগুন, উৎপাদন বন্ধবন্যপ্রাণী বাঁচাতে হলে পরিবেশ ও আবাসস্থল ঠিক রাখতে হবেরাঙামাটিতে ছেলে ধরা সন্দেহে আটক ১বগুড়ায় একই পরিবারের নিখোঁজ ৭ জনকে রাঙামাটিতে উদ্ধারক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের আর্থিক অনুদান দিলো রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদপরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষরোপণের বিকল্প নেই: দীপংকর তালুকদারনারী পাচার চক্রের তিন চাকমা সদস্যকে জেল হাজতে প্রেরণবাঘাইছড়িতে বন্যার পানিতে তলিয়ে নিখোঁজ শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধারটানা বর্ষণে কাপ্তাই হ্রদে পানি বৃদ্ধি, চার ইউনিটে বিদ্যুৎ উৎপাদন ১৬৪ মেগাওয়াটখাগড়াছড়িতে পাহাড়ধস: ৩ ঘণ্টা পর যান চলাচল স্বাভাবিকতিন দিনের সফরে রাঙামাটি আসছেন রাষ্ট্রপতিরাঙামাটিতে পাহাড় ধসের সর্তকতায় মাইকিং, প্রস্তুত ২৬৭ আশ্রয়কেন্দ্ররাঙামাটিতে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিতবাঘাইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২৭ জুলাই, ভোট ইভিএমে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-

প্রকাশিত: ১৯:৫১, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আপডেট: ২০:০১, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

কাপ্তাইয়ে সেনাবাহিনীকে জড়িয়ে মিথ্যাচার, সেই কিশোরীর জবানবন্দি!


রাঙামাটি পার্বত্য জেলার কাপ্তাই উপজেলার ‘রাইখালীতে ৬ সেনা সদস্য কর্তৃক স্থানীয় এক মারমা কিশোরীকে ধর্ষণ’ কথিত এই মিথ্যা অভিযোগ তুলে ইউপিডিএফ (প্রসীত) ও জেএসএস (সন্তু) দলের সন্ত্রাসীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যে তথ্য ছড়িয়ে দেওয়াসহ রাজপথে কর্মসূচী করে সেনাবাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।’

তারই ধারাবাহিকতায় আজ রবিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ইউপিডিএফ (প্রসীত) দল সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র-ছাত্রীরা খাগড়াছড়ি সদরস্থ খাগড়াছড়ি কলেজ গেট থেকে শাপলা চত্বর পর্যন্ত পিসিপির খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ শাখার সভাপতি উথয়চিং মারমার নেতৃত্বে কথিত ধর্ষণ ও নিপীড়ন বিরোধী খাগড়াছড়ি পাহাড়ি শিক্ষার্থীবৃন্দের ব্যানারে সারাদেশে কথিত নারী ধর্ষণ নির্যাতনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও স্লোগানে রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে সেনা সদস্য কর্তৃক এসএসসি পরীক্ষার্থী এক পাহাড়ি ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদ ও ধর্ষকদের দ্রুত গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে। 


প্রসঙ্গত, সম্প্রতি পাহাড়ের আঞ্চলিক সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল ইউপিডিএফ ও জেএসএস নিয়ন্ত্রনাধীন অপপ্রচারের হাতিয়ার হিসেবে পরিচিত হিল ভয়েস ও সিএইচটি নিউজে ৬ সেনা সদস্য কর্তৃক মারমা কিশোরী ধর্ষনের অভিযোগ আনা হয়। এ নিয়ে গত ৪ সেপ্টেম্বর- ২০২৩ থেকে পাহাড়ের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ ও সমাবেশের নামে পাহাড়কে অস্থিতিশীল করে তোলার অপচেষ্ঠায় লিপ্ত রয়েছে ইউপিডিএফ (প্রসীত) ও জেএসএস (সন্তু) দলের সমর্থিত সহযোগী সংগঠনগুলো।

অথচ বিষয়টি ইতোমধ্যে সম্পূর্ণরুপে একটি অপপ্রচার এবং সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মিথ্যাচার বলে প্রমাণিত হয়েছে। এক জবানবন্দীতে কথিত ধর্ষণের স্বীকার সেই মারমা কিশোরী স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে এসে ইউপি চেয়ারম্যান, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও গণমাধ্যম কর্মীদের সামনে হাজির হয়ে নিজের জবানবন্দী দিয়েছেন। সেখানে সেই কিশোরী সেনাবাহিনীকে নিয়ে অপপ্রচার চালানো সন্ত্রাসী দলগুলোর মুখোশ উন্মোচন করেছেন। এছাড়া তিনি সামাজিক ভাবে তার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করার প্রতিবাদও জানিয়েছেন।

সংযুক্ত ভিকটিম কিশোরীর জবানবন্দির লিংক: 

https://www.facebook.com/PaharerVajrakantha247/videos/1480083709433358

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মংকিউ মারমা জানান, ৫ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকালে যে মারমা মেয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ দেওয়া হয়েছে, বিষয়টি ব্যাপক প্রচারের ফলে মেয়েটির ও পরিবার সামাজিকভাবে চরম বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের লক্ষে পরিবারটি স্থানীয় কারবারীকে সাথে নিয়ে এসে চেয়ারম্যান অফিসে এই মর্মে বক্তব্য প্রদান করেছে যে, একটি স্বার্থান্বেষী মহল বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ভাবমূর্তি বিনষ্ট এবং মারমা পরিবারটিকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এই ধরনের মিথ্যা বানোয়াট গুজব প্রচার করছে।

মারমা ওই পরিবারটি স্থানীয় সুশীল সমাজ ও আইন শৃংখলা বাহিনীর নিকট ঘটনাটির সরেজমিনে সত্যতা জেনে, যারা মিথ্যা গুজব এবং অপ-প্রচার করছে তাদের বিরুদ্ধে যেন কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হয় সে অনুরোধ জানিয়েছেন।

ওই কিশোরী আরো জানান, আমরা সকলের সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে বসবাস করতে চাই। স্বার্থান্বেষী মহল কর্তৃক অপপ্রচারে সামাজিক ভাবে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছেন দাবি করে তিনি এর বিচার দাবী করেন।

রাঙামাটির কাপ্তাই চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল আজম জানান, রাইখালী ইউনিয়ন এলাকায় ঐ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। আঞ্চলিক সশস্ত্র সংগঠনগুলো আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিশেষ উদ্দেশ্য সাধনের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত আইন-শৃংখলা বাহিনীর বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও গুজব প্রচার করছে। রাইখালী ইউনিয়নে মিতিংগাছড়ি নামে কোন সেনা ক্যাম্প নেই।

এদিকে, কথিত ধর্ষনের ঘটনায় মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে মারমা সম্প্রদায়কে জড়িয়ে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে উপজাতি সম্প্রদায়কে ক্ষেপিয়ে তোলার জন্য হিল ভয়েস ফেসবুক পেজসহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে মিথ্যা, বানোয়াট তথ্য ছড়াচ্ছে। বিষয়টি আমাদের ‘মারমা সম্প্রদায়’কে রীতিমতো বিব্রত করেছে। এসব অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন মিতিংগাছড়ির কারবারীসহ স্থানীয় মারমা সম্প্রদায়ের নেতাগণ।’

উল্লেখ্য, পাহাড়ের আঞ্চলিক উপজাতীয় সশস্ত্র দল ইউপিডিএফ ও সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন আঞ্চলিক জেএসএস’র নিয়ন্ত্রানাধীন হিল ভয়েস ও সিএইচটি নিউজ দীর্ঘদিন ধরেই পার্বত্য চট্টগ্রামে দেশের সংবিধান, রাষ্ট্রীয় বাহিনী ও জনসাধারণকে নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে আসছে। ২০১৯ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্যকে নিয়ে মিথ্যা ও মানহানিকর সংবাদ প্রকাশের জেরে অপপ্রচারের অভিযোগে সিএইচটি নিউজের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে খাগড়াছড়ি সদর থানায় মামলাও দায়ের করা হয়। সেনাবাহিনী ও সংসদ সদস্যকে নিয়ে অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে তৎকালীন জেলা আওয়ামী লীগ কর্তৃক সংবাদ সম্মেলন করে সিএইচটি নিউজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রীর প্রতিও অনুরোধ জানানো হয়।


 

জনপ্রিয়